অন্যান্য

রুহুল আমিন গাজীর মুক্তির দাবিতে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক: সাংবাদিকদের নির্যাতন ও গ্রেফতার বন্ধ করে রুহুল আমিন গাজীকে মুক্তির দাবি জানিয়েছেন মফস্বল সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা। তারা বলেন, গণমাধ্যম বন্ধ করে সাংবাদিক নির্যাতন করে গণতান্ত্রিক সরকার হওয়া যায় না। গণমাধ্যম বন্ধ করে গণতন্ত্রের মানসকন্যা হওয়া যায় কি? সাংবাদিক নির্যাতন গ্রেফতার খুন করে গণতন্ত্রের মানসকন্যা হওয়া যায় কি? অবিলম্বে বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দিন। অবিলম্বে দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজীকে নিঃশর্ত মুক্তি দিন। তা না হলে জনগণ আপনাকে বাকশালে মানসকন্যা, স্বৈরাচারের মানসকন্যা হিসেবে আখ্যায়িত করবে। সাংবাদিকদের সত্য অনুসন্ধান করার সুযোগ দিন। সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে যত মামলা আছে সব তুলে নিন। তাহলে আপনার ও দেশের লাভ হবে। দেশ গণতন্ত্রের দিকে ধাবিত হবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত সমাবেশে তারা এ দাবি জানান। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন গাজীর মুক্তির দাবিতে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাখাওয়াত ইবনে মঈন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র সাংবাদিক দৈনিক দিনকালের সম্পাদক ড. রেজওয়ান সিদ্দিকী, সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক মো: রুহুল কুদ্দুস কাজল, বিএফইউজের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুল আমিন রোকন, ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, আহমেদ মতিউর রহমান, খায়রুল বাশার, ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি এ কে এম মহসিন, আবু ইউসুফ, সাদ বিন রাবি, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী, খুলনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আলাউদ্দিন, মোফস্বল সাংবাদিক আ্যসোসিয়সেনর যুগ্ম মহাসচিব আসাদুজ্জামান আসাদ, লুৎফর রহমান বিনু, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, ডিইউজের খন্দকার আলমগীর হোসাইন, জেসমিন জুঁই, এস এম আলাউদ্দিন প্রমুখ।

আরো দেখুন

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close